সুনামগঞ্জ – সিলেট সড়ক এর সদরপুর ব্রীজ এর এপ্রোচে ধ্বস, দুর্ঘটনার আশংকা 

প্রকাশিত: ১:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০২১

সুনামগঞ্জ – সিলেট সড়ক এর সদরপুর ব্রীজ এর এপ্রোচে ধ্বস, দুর্ঘটনার আশংকা 

সুনামগঞ্জ – সিলেট সড়ক এর সদরপুর ব্রীজ এর এপ্রোচে ধ্বস, দুর্ঘটনার আশংকা

 

 

 

 

হুমায়ূন কবীর ফরীদি, জগন্নাথপুর প্রতিনিধিঃ

 

 

 

 

সুনামগঞ্জ – সিলেট মহাসড়ক এর সদরপুর ব্রীজ এর পশ্চিম পাড়ের এপ্রোচের এক পাশ ধ্বসে পড়েছে। যার ফলে মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে যানবাহন চলাচল। যে কোনো মুহুর্তে ঘটতে পারে অনাকাঙ্ক্ষিত প্রাণহানীর মতো দুর্ঘটনা। জনসাধারণের জান-মাল এর নিরাপত্তার স্বার্থে এই ব্রীজের ধ্বসে পড়া অংশ দ্রুততার সহিত সংস্কার করা একান্ত প্রয়োজন।

আজ ৩০ শে নভেম্বর রোজ মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা যায় ও জানাযায়, সুনামগঞ্জ – সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়ক এর শান্তিগঞ্জ উপজেলা এলাকার সদরপুর ব্রীজ এর সংযোগ মূখ অর্থাৎ পশ্চিম পার্শ্বের এ্যপ্রোচের দক্ষিণ পার্শ্ব অর্থাৎ সড়কের অর্ধেক অংশ নদীগর্ভে ধ্বসে পড়েছে এবং একটি এ্যপ্রোচ নীচের দিকে ধাবিত হয়ে হেলে পড়েছে। যার ফলে সুনামগঞ্জ থেকে বিভাগীয় শহর সিলেট এর সাথে সংযোগ স্থাপনকারী এই ব্রীজের ধ্বসে না পড়া অংশ দিয়ে বিগত প্রায় এক মাস থেকে যাত্রীবাহী ছোট যানবাহন থেকে শুরু করে বাস- মিনিবাস, লরি, ট্রাক সহ পন্যবাহী সকল রকমের যানবাহন ঝুঁকির মধ্য দিয়ে চলাচল করছে। জীবন জীবিকার তাগিদে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লাখ লাখ মানুষ প্রতিনিয়ত দেশের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে এই সড়ক দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন।যেকোনো মুহুর্তে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ দায়সারা ভাবে ব্রীজটির এ্যপ্রোচ এর ভাঙা অংশে বালিমাটি ভর্তি বস্তা দিয়ে প্রতিবন্ধকতা ও রাতে চলাচলকারী যানবাহনের সতর্কতার লক্ষে সিগন্যাল লাইট স্থাপন করলেও ব্রীজের এপ্রোচ এর ভাঙা অংশ সংস্কার এর কোনো উদ্যোগ আজো নেয়া হয়নি।

এই সড়ক দিয়ে চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাস এর চালক মো ফারুক মিয়া, সিএনজি চালক পানেশ ও কালাম সহ একাধিক চালক বলেন, এই সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত দিবারাত্রি প্রায় দুই লক্ষাধিক মানুষ দেশের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে চলাচল করেন। এমনকি পন্যবাহী যানবাহন চলাচলতো আছেই। সদরপুর ব্রীজ এর পশ্চিমাংশের এ্যপ্রোচ বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। এই এ্যপ্রোচ এর একটি অংশ ইতিমধ্যে ধ্বসে পড়েছে। অবশিষ্ট অংশ দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে তাও যেকোনো মুহূর্তে ধ্বসে পড়ার আশংকা বিরাজমান। ঘটতে পারে অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা। বিধায় দ্রুত এ্যপ্রোচ সংস্কার প্রয়োজন।

এব্যাপারে সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেন, ব্রীজটির এ্যাপ্রোচের অংশটি ইতিপূর্বে স্টিলের পিলার বসিয়ে মেরামত করা হয়েছে। কিন্তু কিছু টেকনিক্যাল সমস্যার কারনে দেবে গেছে। এ বিষয়ে আমরা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে চিঠি পাঠিয়েছি। আশা করছি দ্রুত মেরামত করা সম্ভব হবে।

 

হাবিবা আক্তার ///

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

%d bloggers like this: