বংশীকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নে সোনার নৌকা উপহার দিতে চান চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হোসেন

প্রকাশিত: ৩:১৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০২১

বংশীকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নে সোনার নৌকা উপহার দিতে চান চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হোসেন

বংশীকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নে সোনার নৌকা উপহার দিতে চান চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হোসেন

 

নিজস্ব প্রতিনিধি

আসন্ন ২০২১ এর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে

সুনামগঞ্জ জেলাধীন মধ্যনগর উপজেলার উত্তর বংশীকুন্ডা ইউনিয়নে,আলোচনায় সকলের শীর্ষে রয়েছেন,মধ্যনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য দলীয় নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃআনোয়ার হোসেন।তিনি উত্তর বংশীকুন্ডা ইউনিয়নের মহিষখলা গ্রামের প্রয়াত আব্দুর রশিদ মোড়লের দ্বিতীয় পুত্র।

পিতা আঃরশিদ মোড়ল ও চাচা কালা মোড়ল এর বাসস্থান থেকেই ১১নম্বার সাবসেক্টর সহায়তাকারী প্রয়াত বারবারের সাংসদ আব্দুল হেকিম চৌধুরী,এমএলএ আকলাকুর রহমান’সঙ্গীয় অন্যান্য নেতৃবৃন্ধের সমন্বয়ে বাসস্থানের মাধ্যমে বিশেষভাবে সহযোগিতার অবদান রয়েছে। এবং-স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদের বিশেষ সদস্য।

মোঃআনোয়ার হোসেন তিনি-পারিবারিক সুত্রেই বাঙ্গালী জাতির পিতা শেখমুজিবুর রহমানের আদর্শকে মাথায় নিয়ে আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।তিনি বংশীকুন্ডা উত্তর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠা কালীন সাংগঠনিক সম্পাদক,পরবর্তীতে আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহঃসভাপতি,বর্তমানে মধ্যনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।এছাড়াও ২০০৮সালে মহিষখলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি হিসেবে দু’বার নির্বাচিত হয়ে সুনামের সহিত পরিচালনা করেছেন।

আসন্নবর্তী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় নৌকা প্রতীকএর মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ আনোয়ার হোসেন প্রতিনিধিকে জানান-আমি সুনামগঞ্জের সীমান্তবর্তী অঞ্চলের ক্ষেটে খাওয়া কৃষকের সন্তান,ছাত্র জীবন থেকেই পাহাড়ের পাদদেশে ছড়িয়ে থাকা এলাকার অসহায়,হিন্দু,মুসলিম,গারো,হাজং জনগোষ্ঠীর সুখে দুঃখের অংশ নিয়ে যথোপযুক্ত ভাবে পাশে ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো।আমাকে এলাকার জনসাধারণ বিশ্বাস ও ভালবাসেন।তাঁদের ভালবাসার ছোয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি বারবারের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় প্রতিনিধি হিসেবে নৌকার মনোনয়ন আমাকেই দিবেন আশা করছি।এবং আমি তৃণমূলের সমর্থনে সেই নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করে প্রধানমন্ত্রীকে সোনার নৌকা উপহার হিসেবে ফিরিয়ে দিতে পারবো ইনশাআল্লাহ।

 

হাবিবা আক্তার জেছি //

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

%d bloggers like this: