জগন্নাথপুর এর মেয়ে হার্ডলার তামান্নার ডাবল হ্যাটট্রিক, বিভিন্ন মহল এর অভিনন্দন 

প্রকাশিত: ১২:৩১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০২২

জগন্নাথপুর এর মেয়ে হার্ডলার তামান্নার ডাবল হ্যাটট্রিক, বিভিন্ন মহল এর অভিনন্দন 

 

হুমায়ূন কবীর ফরীদি, জগন্নাথপুর প্রতিনিধিঃ

 

জগন্নাথপুর এর কৃতি সন্তান বাংলাদেশ নৌবাহিনীর অ্যাথলেট তামান্না আক্তার জাতীয় অ্যাথলেটিকসে ডাবল হ্যাট্রিক করায় তাঁর উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করার পাশা-পাশি অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন মহল।

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ১নং কলকলিয়া ইউনিয়ন এর অন্তর্ভুক্ত জগদীশপুর গ্রাম নিবাসী মোঃ সাবেক মিয়ার একমাত্র কন্যা বাংলাদেশ নৌবাহিনীর অ্যাথলেট তামান্না আক্তার জাতীয় অ্যাথলেটিকসে অন্যরকম ডাবল হ্যাটট্রিক করেছেন। জাতীয় ও সামার মিট মিলিয়ে তিনি ১০০ মিটার হার্ডলসে টানা ৬ বার স্বর্ণ জিতেছেন। এই অর্জনে তাঁর উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করার পাশা-পাশি তাকে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন ১ নং কলকলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এর নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ রফিক মিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হাসিম, স্পেনের বার্সেলোনায় বসবাসরত বাংলাদেশিদের সামাজিক সংগঠন কলকলিয়া ইউনিয়ন উন্নয়ন সমাজ কল্যান সংস্থার সাধারন সম্পাদক মোঃ আলী আসকর, কলকলিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক এম সাদিকুর রহমান নান্নু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সিদ্দিকুর রহমান তালুকদার, জগন্নাথপুর উপজেলা শাখা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক জহিরুল ইসলাম লেবু, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক কমিটির সদস্য ও কলকলিয়া ইউনিয়ন শাখা যুবদলের সাবেক সভাপতি মোঃ সেলিম আহমদ, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক কমিটির সদস্য রোকন মিয়া ও যুবদল নেতা কামরুল হাসান লিটন।

বিবৃতি দাতারা তাদের বিবৃতিতে তামান্না আক্তার এর উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করার পাশাপাশি তাকে অভিনন্দন জানিয়ে তাঁর সাফল্যের প্রসংশা করে বলেন এটি শুধু জগদীশপুর গ্রামের সুনাম নয়, এই সুনাম সারা জগন্নাথপুর উপজেলা তথা সুনামগঞ্জ জেলা বাসীর। তামান্না আক্তার এর জন্য দেশবাসীর নিকট দোয়া কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে শেখ কামাল ৪৫তম জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে তিনি জিতেছেন ষষ্ঠ স্বর্ণ। তামান্না সময় নিয়েছেন ১৪.৭৯ সেকেন্ড। এটি তার জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে চতুর্থ স্বর্ণ পদক। বাকি দুটি তিনি জিতেছেন সামার মিটে। প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু হয় ২০ কিলোমিটার হাঁটা ইভেন্ট দিয়ে।

লংজাম্প মহিলা ইভেন্টে স্বর্ণ পদক অর্জন করেন বিমানবাহিনীর সোনিয়া আক্তার । তিনি ৫.৬৬ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করেন। জ্যাভলিন থ্রো পুরুষ ইভেন্টে স্বর্ণ পদক বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. আহাদ আলী। তিনি ৬১.৪৮ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করেন ।

বিকালে ১১০ মিটার হার্ডলস পুরুষ ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন নৌবাহিনীর মাসুদ খান ১৫.০৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে। দ্রুততম মানবের মুকুট হারালেও লংজাম্প পুরুষ ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন নৌবাহিনীর এম ইসমাইল। তিনি ৭.২৬ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করেন।

৪০০ মিটার পুরুষ ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন সেনাবাহিনীর নাজিমুল হোসেন রনি। তিনি সময় নেন ৪৯.৭৭ সেকেন্ড। ৪০০ মিটার মহিলা ইভেন্টে স্বর্ণ পদক পেয়েছেন নৌবাহিনীর সাবিহা আল সোহা, সময় নেন ৫৯.১৬ সেকেন্ড।

পোল্টভল্টে স্বর্ণ পদক জিতেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মো. আবু বকর সিদ্দিক। ৪.১৫ মিটার উচ্চতা লাফিয়েছেন তিনি।

 

হাবিবা আক্তার //

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

%d bloggers like this: